২৭-ফেব্রুয়ারি-২০২৪
২৭-ফেব্রুয়ারি-২০২৪
Logo
ফুটবল

রোনালদোরা এক মেসিকে দেখেছেন, নেইমারদের সামনে অন্য মেসি

প্রকাশিতঃ ২০২১-০২-১৬ ০৩:৫৫:২৮
...

সে ম্যাচটাতে বার্সেলোনার জিতলে তো কথাই ছিল না, ড্র করলেও হতো। এমনকি হারলেও ব্যবধানটা দুই গোলের বেশি না হলেই ঝামেলা হতো না। গত ডিসেম্বরে যখন চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাসের মুখোমুখি হয়েছিল লিওনেল মেসির বার্সা, গ্রুপ শীর্ষে থেকে শেষ ষোলোতে যেতে এ-ই ছিল মেসির বার্সার সামনে সমীকরণ।

কিন্তু সমীকরণটা মেলাতে পারেনি বার্সা। নিজেদের মাঠ ক্যাম্প ন্যু-তে জুভেন্টাসের কাছে হেরে যায় ৩-০ গোলে। পেনাল্টি থেকে রোনালদো জোড়া গোল করেন, মেসি ছিলেন সেদিন অনুজ্জ্বল। যেন দর্শক হয়ে রোনালদোর উল্লাস দেখেছেন।

রোনালদোর সঙ্গে ব্যক্তিগত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হেরে যাওয়া তো বটেই, সেই হারটা মেসির বার্সার হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের স্বপ্নে আরেক বড় বাধার মুখোমুখি করে দিয়েছে। গ্রুপে দ্বিতীয় হওয়ায় শেষ ১৬-তে বড় দলের মুখোমুখি হতেই হতো বার্সাকে, ড্র কাতালানদের দাঁড় করিয়ে দিল নেইমার-এমবাপ্পের পিএসজির সামনে!


কিন্তু দুই মাস আগে-পরের দুই ম্যাচের মধ্যে বার্সা আর মেসি কি একই আছেন? স্প্যানিশ দৈনিক ‘মার্কা’র বিশ্লেষণাত্মক প্রতিবেদন বলছে, উত্তরটা  ‘না’।

বার্সা যে ছন্দে ফিরেছে, মেসি যে স্বরূপে ফিরেছেন, সেটি মার্কার না বললেও চলে। সেটি বুঝতে ফুটবলের ‘আইনস্টাইন’ও হতে হয় না। সে জন্য সাদাচোখই যথেষ্ট।   

জুভেন্টাসের মুখোমুখি যখন হয়েছিল বার্সা, রোনাল্ড কোমানের অধীনে চার-পাঁচ মাস পেরিয়ে গেলেও তখনো ডাচ কোচের কৌশলটা রপ্ত করতে পারেননি খেলোয়াড়েরা। কিংবা এভাবে বলা যেতে পারে, খেলোয়াড়দের না বুঝেই কৌশল চাপানোর চেষ্টা করেছিলেন কোমান। ফলটা মাঠে বার্সার পারফরম্যান্স আর লিগের পয়েন্ট তালিকাই বলে দিচ্ছিল।