১৯-এপ্রিল-২০২৪
১৯-এপ্রিল-২০২৪
Logo
রাজশাহী

নওগাঁয় সরিষার বাম্পার ফলনে খুশি কৃষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিতঃ ২০২৩-০২-০৮ ১৩:১৯:২৬
...

এম এ রাজ্জাক নওগাঁ প্রতিনিধি:

সীমান্তবর্তী জেলা নওগাঁয় এবার রবি মৌসুমে সরিষার ব্যাপক চাষ হয়েছে। ইতোমধ্যে জেলার প্রতিটি মাঠে শুরু হয়েছে সরিষা কাটা-মাড়াই। এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এই জেলায় সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে। এ ছাড়া দাম ভালো পাওয়ায় খুশি কৃষকরা। আমন ধান কাটার পর এই অঞ্চলের কৃষকরা বাড়তি ফসল হিসেবে সরিষা চাষ করে থাকে। সরিষা বিক্রি করে যে টাকা পায় ওই টাকা দিয়ে আবার ইরি বোরো মৌসুমে ধান রোপণ করে তারা। এবার সরিষা ফলন ও দাম ভালো পাওয়ায় খুশি কৃষকরা।

মান্দা উপজেলা পরানপুর গ্রামের   কৃষক মাজেদ জানান, আমি প্রতি বছর আমন ধান কাটার পর জমিতে সরিষা চাষ করি। এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সরিষার ফলন ভালো হয়েছে। আমি সরিষা কাটাই-মাড়াই শেষ করেছি। ফলন ভালো পেয়েছি এবং বাজারে দামও ভালো পাচ্ছি।

ধামরহাট উপজেলার খেলনা  গ্রামের কৃষক শহিদুল ইসলাম  জানান, সরিষা চাষে খরচ কম লাভ বেশি। আর সরিষা চাষ করলে বোরো রোপণের সময় আলাদা ভাবে ওই জমিতে আর সার দিতে হয়। সরিষা বিক্রি করে টাকাও পাওয়া যায় আবার তেলের চাহিদাও মেটাতে পারি।

নিয়ামতপুর উপজেলার গয়েশপুর  গ্রামের কৃষক  মোস্তফা কামাল  জানান, বাড়তি ফসল হলেও এবার বাজারে এর দাম ভালো আছে। প্রতি বিঘায় সরিষার ফলন ৫ থেকে ৬-৭ মণ পাওয়া যাছে। বাজারে প্রতি মণ সরিষা ১৬শ’ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে আমরা খুব খুশি। এই টাকা দিয়ে বোরো রোপণ করতে পারব আমরা। নওগাঁ কৃষি উপ পরিচালক আবুল হোসেন  বলেন, কৃষকরা এই ফসলটাকে বাড়তি আয়ের উৎস হিসেবে চাষাবাদ করে থাকে। আমরা প্রতি বছর সরিষা চাষের জন্য কৃষকদের সরকারিভাবে প্রণোদনা দিয়ে থাকি এবারও দিয়েছে। এবার এই জেলার ১১টি উপজেলায় এবছর সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩৪ হাজার ৪'শ হেক্টর। লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আবাদ হয়েছে ৪৭ হাজার ৮'শ হেক্টর জমিতে।

ইতিমধ্যে কৃষকরা সরিষা কাটা শুরু করেছে, ফলনও ভালো পাচ্ছে। আশা করছি বাজারে ভালো দামও পাবেন তারা।